Wednesday, October 7, 2015

পোস্তিগা ৩-৪ সপ্তাহ নেই শুনে সৌরভ, ‘ভালদো আছে, ভালই খেলবে’

কাশীনাথ ভট্টাচার্য

মেল-বক্সে আতলেতিকো দে কলকাতার মিডিয়া ম্যানেজারের পাঠানো ‘প্রেস স্টেটমেন্ট’ পৌঁছনোর সময় দেখাচ্ছে ৩-০৮, বিকেল। সৌরভ গাঙ্গুলির সঙ্গে সিএবি-তে সংবাদমাধ্যম যখন কথা বলল, ঘড়ির কাঁটা রাত সাড়ে আটটা ছুঁইছুঁই। কিন্তু, সৌরভ তখনও জানেন না, তাঁর দলের মার্কি ফুটবলার এলদের পোস্তিগা অন্তত ৩-৪ সপ্তাহ বাইরে থাকবেন, চিকিৎসার জন্য ফিরে গিয়েছেন পর্তুগালে!
কী করে বোঝা গেল সৌরভ জানতেন না?
সিএবি-তে তাঁর ঘরের সামনে বারদশেক সৌরভকে সংবাদমাধ্যমের ঘিরে ধরার চেষ্টার পর অবশেষে যখন ধরা দিলেন সিএবি-র ভাবি সভাপতি, দু-দিন পরের ম্যাচ নিয়ে নয়, আলোচনায় বারবারই উঠে এল আতলেতিকোর ভবিষ্যৎ। প্রথমে যখন শুনলেন পোস্তিগা খেলতে পারবেন না, নিজেই প্রশ্ন করলেন, ‘কত দিনের জন্য বাইরে?’ অর্থাৎ, সিএবি নিয়ে এতটাই ব্যস্ত যে, ঘন্টা পাঁচ আগের ঘটনাও তাঁকে জানিয়ে দেওয়া সম্ভব হয়নি।
স্বাভাবিকও। বৃহস্পতিবার যে ইডেনে টি টোয়েন্টি। আর তিনি আয়োজকদের অঘোষিত প্রধান। সোমবার রাতে সিএবি-র অবৈতনিক যুগ্মসচিব পদত্যাগ করেছেন, ১৫ অক্টোবর সিএবি-র সভাপতি হিসেবে উঠে আসবেন বলে। ইডেনে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট মানে তো তিনি কন্যাদায়গ্রস্ত পিতার ভূমিকাতেই, তাই না? যদিও নিজেই বলছিলেন, ‘সিরিজই তো শেষ’, তাতেও ফুরসত পেলেন কই?
তাই পোস্তিগার খবর সময়মতো পাননি বলে আতলেতিকো নিয়ে উৎসাহ হারিয়েছেন, এমন সিদ্ধান্তে পৌঁছতে চাইলে তা হঠকারিতা। হ্যাঁ, বুধবার এফসি গোয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচেও যেতে পারছেন না গোয়ায়। কী করে যাবেন? পরের দিনই যে ধোনি বনাম ফাফ, তাঁর ঘরের মাঠে!

কিন্তু, পোস্তিগার পর্তুগাল চলে-যাওয়া আর ৩-৪ সপ্তাহ বাইরে থাকার কথা শুনে বিন্দুমাত্র না-ভেবেই বলে দিলেন, ‘ভালদো আছে তো, খেলবে। ভালই খেলেছিল আগের ম্যাচেও।’ এই ভালদো মানে প্রথম ম্যাচে পোস্তিগা চোট পেয়ে উঠে যাওয়ার পর মাঠে-আসা পরিবর্ত ফুটবলার ভালমিরো লোপেজ রোচা। জন্ম স্পেনের ভিয়াব্লিনোতে, রেয়াল মাদ্রিদ, ওসাসুনা, এস্পানিওল, মালাগা ও লেভান্তে-র হয়ে খেলে আসা চৌত্রিশ বছরের উইঙ্গার। স্পেনের সিনিয়র দলের হয়ে খেলার ডাক পাননি। তাই আন্তর্জাতিক আসরে খেলেছিলেন কেপ ভারদে-র হয়ে, মাত্র দুটি ম্যাচে। প্রথম ম্যাচে যিনি করেছিলেন দলের তৃতীয় গোল চেন্নাইয়িনের বিরুদ্ধে, তাদের মাঠে।
দ্বিতীয় আইএসএল-এর ফাইনাল ২০ ডিসেম্বর। ৩ অক্টোবর শুরু হয়েছিল মানে, ১১ সপ্তাহের প্রতিযোগিতা। তাতে সপ্তাহ চারেক না-থাকলে কি নতুন করে মার্কি ফুটবলারের জন্য আবেদন জানাবে আতলেতিকো? সৌরভ অবশ্য এই প্রশ্ন পাঠালেন বাউন্ডারির বাইরে। ‘এটা কোচ বুঝবে। আমার এত যোগ্যতাই নেই এ ব্যাপারে কথা বলার! এই সব সিদ্ধান্ত নেবেন কোচ।’
আতলেতিকোর মালিকের তো আর মাঠে যাওয়াই হচ্ছে না! ‘যাব তো, ১৩ তারিখ। এখন আর কত দিক সামলাব!’
আপাতত তাঁর ব্যস্ততা সিএবি ঘিরেই। ১৩ তারিখ প্রথম হোম-ম্যাচের আগেই ফুটবল-মোডে ঢুকে পড়বেন মহালয়ার দিন ১২ অক্টোবর থেকে। কারণ?

দেবীপক্ষে কলকাতা যে সেই দিনই প্রবেশ করবে পেলেপক্ষে!
Post a Comment